পৃষ্ঠাসমূহ

রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

অনুতাপ

আজকে আমার সমাধীতে কেন ফুল হাতে তুমি বল?
মুখ খানি কেন বিরস তোমার আঁখি কেন ছলছল?
যেদিন তোমার ফুল চেয়েছি সকরুণ আঁখি মেলে,
অসহায় এই আমায় তুমি গিয়েছিলে পিছু ফেলে।
তোমার চলে যাওয়ার পথে,
চেয়ে থেকেছি সুদূর হতে,
ভেবেছি তুমি আসবে রথে,
                                 সব অভিমান ভুলে।
তোমার ফেরার আশায় আমার দিন ফুরায়ে গেল।
শেষ বিদায়ের যাত্রা দেখে কি সুখ পেলে বল?

শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

মাওলা

মাওলা আমায় ক্ষমা করো, তোমায় আমি ডাকলাম না।
তুমি এতো দয়ার সাগর, তোমার মান তো রাখলাম না।
অন্ধকারে পথ হারিয়ে যখন দাঁড়াই থম্‌কে,
আলো হয়ে পথটি দেখাও কখনো না ধম্‌কে।
তোমার আশীর্বাদে অনেক উঠেছি আমি চম্‌কে।
মূর্খ আমি, তবুও তোমার ছবি মনে আঁকলাম না।

শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

ফুল ও মানুষ

ফোটেনা পুষ্প নিজের লাগিয়া, আপনারে করে দান;
নিঙরায় তারে অবাক পৃথিবী নিতে পুষ্পের ঘ্রাণ।
যে ফুল কাননে রাতের আঁধারে সুবাস পেখম মেলে,
দিন শেষে সে-ই ঝরে পরে রয় ধরনীতে অবহেলে।
পারবে কি কভু দিতে একটি ফুলের প্রাণের দাম?
সৃষ্টির সেরা বলছো নিজেকে মানুষ দিয়েছ নাম!

বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

প্রেম-২

যে তোমারে নিশি-দিন ভালবাসে গোপনে,
তুমি তারে ভুলেও কভু দেখনাতো স্বপনে।
তুমি যারে বাস ভাল মনো-প্রানো দিয়ে,
সে বুঝি গো ব্যস্ত এখন আরো কারে নিয়ে।
তোমার চোখের অশ্রু-ফোঁটা পায় না যে জন দেখিতে,
নিবোর্ধ সে, অন্ধ সে জন আঁখি দুটি থাকিতে।
তোমার তরে ফেলছে যে বা অশ্রু দিবা-নিশি,
তুমি কি গো দেবে মুছে একটি বার ও আসি?
যাহার তরে মরছো তুমি কষ্ট করছো ক্রয়,
কোন সে ভ্রমে রয়েছো পড়ে যে জন তোমার নয়?
যার অন্তরে রক্ত-ক্ষরণ তোমার প্রেমের লাগি,
তুমি তারে দেখলেনাতো একটি বারও জাগি
তোমায় ভালবেসে যে জন নিরবে যায় হারিয়ে,
ভুল করোনা রুখতে তারে বাহু দুখান বাড়িয়ে।